শনিবার , ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
×

পু‌লিশ কেডসের সূত্র ধরে যেভাবে প্রাইভেটকার চোর ধরল

একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে চোরের পরিহিত কেডস এর সূত্র ধরে অভিযানে চালিয়ে মো. সাদ্দাম হোসেন (৩৫) নামে । এসময় চোরই কৃত প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার দিকে ডবলমুরিং মডেল থানার ওসি ফজলুল কাদের পাটোয়ারী আজাদীকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এরআগে গতকাল রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ডবলমুরিং মডেল থানার ওসি ফজলুল বলেন, গত ৬ ফেব্রুয়ারি দুপুরে নগরীর আগ্রাবাদ বাণিজ্যিক এলাকার কমার্স কলেজ রোড থেকে ১টি প্রাইভেটকার চুরি হয়। চুরি হওয়া কারটির মালিক রাশেদ পাশা জানান যে, তিনি কারটি নিজে চালিয়ে তার ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠানের কাছে সড়কে পার্কিং করে রেখে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যান।

তার প্রতিষ্ঠানের জিএম ও একজন স্টাফ প্রতিষ্ঠান থেকে বের হয়ে পার্কিংস্থলে এসে দেখতে পান কারটি নেই। কারটি কে বা কারা চুরি করে নিয়ে গেছে।

এ ঘটনায় মামলা দায়ের হলে ঘটনাস্থলসহ আশপাশের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ শুরু করে এবং অন্যান্য প্রযুক্তিগত তথ্য উপাত্ত সংগ্রহে নেমে পড়ে। ঘটনাস্থল ও আশপাশের সিসিটিভি ফুটেজের ব্যাপক বিশ্লেষণে দেখা যায়- মাথায় হুডিসহ গায়ে জ্যাকেট, চোখে চশমা, মুখে মাস্ক, পায়ে কেডস পরিহিত এক ব্যক্তি কারটির আশপাশে কয়েক মিনিট ঘোরাঘুরি করে কারটির দরজা খুলে কারটি চালিয়ে আগ্রাবাদ হোটেলের সামনে দিয়ে নিয়ে চলে যায়।

তিনি বলেন, তার পায়ে পরিহিত কেডসের সাথে ঘটনাস্থলের সিসিটিভি ফুটেজে থাকা ব্যক্তির পায়ে পরিহিত কেডস দেখতে একই। এরপর মহানগরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে অবশেষে খুলশী এলাকা থেকে সাবেক ড্রাইভার মোঃ সাদ্দামকে গ্রেফতার করা হয়।

সাদ্দামের দেখানোমতে নগরীর পশ্চিম খুলশীর জালালাবাদ এলাকার একটি ভবনের গ্যারেজ থেকে চুরি হওয়া সিলভার কালারের টয়োটা এলিয়ন প্রাইভেট কারটি উদ্ধার করা হয়েছে। কার থেকে উদ্ধার করা হয়েছে চুরি কালে চোরের গায়ে থাকা হুডিসহ জ্যাকেট, পরিহিত কেডস।

তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।